গুইমারাতে পুলিশ সদস্যদের মাঝে সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

বৈশ্বিক মহামারী কোভিট-১৯ করোনা ভাইরাসের ভয়াল থাবায় ইতিমধ্যেই বিশ্বের দুশতাধিক দেশে ৩৪লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত  এবং দুলাখ চল্লিশ মানুষের মৃত্যুই জানান দিচ্ছে এর ভয়াবহতা। উন্নত চিকিৎসা ব্যবস্থা আর অর্থনৈতিক পরাশক্তির দেশ গুলো রীতিমত হিমশিম খাচ্ছে মৃত্যুর মিছিল সামাল দিতে সেখানে বাংলাদেশের মত রাষ্ট্র গুলো আছে মারাত্মক ঝুঁকিতে। পশ্চিমা বিশ্বের রাষ্ট্রপ্রধান থেকে শুরু করে কেউই বাদ পড়ছেন না করোনার থাবা থেকে। ইতিমধ্যে সংক্রমনের ৪র্থ ধাপ পার করছে ববাংলাদেশ। দেশে শুরু হয়েছে কমিউনিটি ট্রান্সমিশন,আক্রান্ত হয়েছে ৯৪৫৫এর বেশী মানুষ।সেই সাথে মুত্যুর তালিকায় যোগ হয়েছে ১৭৭জনের নাম।

বিশ্বের এ কঠিন পরিস্থিতি মোকাবেলায় সম্মুখযুদ্ধে অবতীর্ন আছেন চিকিৎসক, নার্স, চিকিৎসা সহকারীসহ আইনশৃংখলা রক্ষায় নিয়োজিত পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা। করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিত চিকিৎসক, নার্স এবং পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করছেন অনেকে।

চিকিৎসা সেবায় নিয়োজিতদের জন্য সরকারীভাবে সল্প সংখ্যক হলেও সুরক্ষা সামগ্রী সরবরাহের ব্যবস্থা থাকলেও এ ক্ষেত্রে একেবারেই অরক্ষিত থেকে যাচ্ছে পুলিশ বাহিনী। ইতিমধ্যেই শতাধিক আক্রান্ত ও তিন জন পুলিশ সদস্য মৃত্যুবরন করে নতুন করে শংকার জন্ম দিয়েছে পুলিশ সদস্যদের মধ্যে।

এরই মধ্য পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের পেশাগত দায়িত্ব পালন ও তাদের সুরক্ষায় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন বাংলাদেশ মেডিকেল সাইন্স হোম নামের একটি ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠান।শনিবার বিকেলে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে খাগড়াছড়ির গুইমারা থানায় কর্মরত অফিসার ও কনষ্টেবলদের জন্য পিপিই, হ্যান্ডস্যানিটাইজার, গ্লাবস, মাক্স, নিরাপত্তা চশমা, ক্যাপ, সু-কাভার প্রদান করে। 

ঢাকাস্থ বাংলাদেশ মেডিকেল সাইন্স হোমস এর স্বত্তাধিকারী জুয়েল আহমেদ চৌধুরীর পক্ষে তার ছেলে ওমর ফারুক চৌধুরী ও মুশফিকুর রহমান চৌধুরী গুইমারা থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমানের নিকট পিপিই সহ বিভিন্ন সুরক্ষা সামগ্রী হন্তান্তর করেন।

এতে অন্যান্যের মধ্যে অফিসার ইনচার্জ(তদন্ত) সফিকুল ইসলাম সহ অফিসার কনস্টেবল ও গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

এসময় গুইমারা থানার ওসি মিজানুর রহমান দেশের এসংকটময় মুহূর্তে পুলিশ বাহিনীর সুরক্ষার কথা চিন্তা করে তাদের প্রতি সহযোগীতায় হাত বাড়িয়ে দেয়ায় সংশ্লিষ্টদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

এদিকে বাংলাদেশ মেডিকেল হোমস পক্ষ থেকে সুরক্ষা সামগ্রী প্রদানকালে ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, দেশের এই সংকটময় মুহূর্তে করোনা যোদ্ধাদের সুরক্ষার কথা চিন্তা করে পুলিশ বাহিনীর সদস্য, বিভিন্ন হসপিটাল, ও সাংবাদিকদের মাঝে পিপিই সামগ্রী বিতরন কার্যক্রম শুরু করেছি। ভবিষৎ এ ধারা অব্যাহত থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here